সীমান্তজুড়ে সংক্রমণ বৃদ্ধি অব্যাহত

রামেক হাসপাতালে আরো ১২ জনের মৃত্যু

প্রসারিত করো ছোট করা পরবর্তীতে পড়ুন ছাপা

করোনা সংক্রমণ ও উপসর্গ নিয়ে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে প্রাণ গেছে আরো ১২ জনের। চিকিৎসাধীন অবস্থায় রোববার (১৩ জুন) সকাল ৯টা থেকে সোমবার (১৪ জুন) সকাল ৯টার মধ্যে হাসপাতালের করোনা ইউনিটে তারা মারা যান।

এদের মধ্যে ১০ জন করোনায় এবং দুজন উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন। এর মধ্যে চাঁপাইনবাবগঞ্জের ছয়জন, রাজশাহীর তিনজন, নাটোরের দুজন এবং মেহেরপুরের একজন রয়েছেন।

রামেক হাসপাতালের উপপরিচালক ডা. সাইফুল ফেরদৌস এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় রামেক হাসপাতালে ১২ জন মারা গেছেন। গত এক দিনে হাসপাতালের ৩ নম্বর ওয়ার্ডে চারজন, ১ নম্বর ওয়ার্ডে তিনজন, ২৯, ৩০ নম্বর ওয়ার্ডে দুজন, ১৬ ও ২২ নম্বর ওয়ার্ড এবং আইসিইউতে একজন করে মারা গেছেন।

করোনা সংক্রমণে চাঁপাইনবাবগঞ্জের চারজন, রাজশাহীর তিনজন, নাটোরের দুজন এবং মেহেরপুরের একজনসহ মোট ১০ জন মারা গেছেন। এ ছাড়া উপসর্গ নিয়ে চাঁপাইনবাবগঞ্জের দুজন মারা গেছেন। স্বাস্থ্যবিধি মেনে তাদের মরদেহ দাফনের পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

উপপরিচালক আরো বলেন, ২৭১ শয্যার রামেক হাসপাতালের করোনা ইউনিটে রোববার সকাল ৯টা পর্যন্ত রোগী ভর্তি ছিলেন ৩০৭ জন। এর মধ্যে আইসিইউতে ভর্তি রয়েছেন ১৯ জন। করোনা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন ১৫৭ জন এবং উপসর্গ নিয়ে ভর্তি রয়েছেন ১০০ জন। করোনা ধরা পড়েনি হাসপাতালে ভর্তি ৫০ জনের নমুনায়। এ ছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ৪৪ জন। এই একদিনে হাসাপাতাল ছেড়েছেন ২৬ জন।

রোববার (১৩ জুন) রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতাল ল্যাবে ১৮৮ জনের এবং রাজশাহী মেডিকেল কলেজ পিসিআর ল্যাবে ৪৬৫ জনের নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। এর মধ্যে রামেক হাসপাতাল ল্যাবে ৭৮ ও রামেক ল্যাবে ১৬৯ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

পরীক্ষার অনুপাতে রাজশাহীতে সবেচেয়ে বেশি ৪১ দশমিক ১৮ শতাংশ নমুনায় করোনা শনাক্ত হয়। এ ছাড়া নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় নওগাঁর ৩৮ দশমিক ১৪ শতাংশ এবং নাটোরের ২৩ দশমিক ১২ শতাংশ করোনা ধরা পড়েছে।