খিলক্ষেত ফ্লাইওভারে গলায় গামছা পেঁচানো প্রবাসীর মরদেহ

প্রসারিত করো ছোট করা পরবর্তীতে পড়ুন ছাপা

রাজধানীর খিলক্ষেত ফ্লাইওভার থেকে গলায় গামছা পেঁচানো অবস্থায় সুভাষ চন্দ্র সূত্রধর (৩৬) নামে এক দুবাই প্রবাসীর মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (৬ মে) ভোর ৫টার দিকে খিলক্ষেত থানা পুলিশ তার মৃতদেহ উদ্ধার করে। পরে ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ মর্গে পাঠনো হয়।

খিলক্ষেত থানা পুলিশ ভোরে খিলক্ষেত বাজারসংলগ্ন বাসস্ট্যান্ডে ৩০০ ফিট রাস্তার ওভারব্রিজের ওপর থেকে ওই যুবকের লাশ উদ্ধার করে। তার শরীরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, তাকে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে।  

এদিকে নিহতের বেয়াই রিপন কুমার জানান, সুভাষের বাড়ি বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার নারায়ণপুর গ্রামে। গত ছয় মাস আগে দুবাই থেকে সে বাংলাদেশে আসে। বাংলাদেশে আসার পরপরই বিয়ে করে সে রীতু সূত্রধরকে।  চলতি মাসের ৮ তারিখ তার আবার দুবাই যাওয়ার ফ্লাইট ছিল। এ জন্য গতকাল রাতে সে বগুড়া থেকে ঢাকায় আসছিল আনুষঙ্গিক কাগজপত্র ও করোনা টেস্ট করার জন্য।

তিনি জানান, রংপুর থেকে ঢাকাগামী একটি মাইক্রোবাসে তিনি বগুড়ার মোকামতলা থেকে ওঠেন । এরপর তার সঙ্গে পরিবারের কথাও হয়। আজ সকাল ৯টার দিকে পুলিশের মাধ্যমে ফোন পেয়ে ঢাকা মেডিকেলে এসে তিনি নিশ্চিত করেন সুভাষের মৃতদেহ । 

তিনি জানান, সুভাষের সঙ্গে কারো শত্রুতা নেই। হয়তো ছিনতাইকারীরা তাকে শ্বাসরোধে হত্যা করতে পারে।

খিলক্ষেত থানার উপপরিদর্শক (এসআই) শাহিনুর রহমান বলেন, আমরা আজ বহস্পতিবার ভোরে খবর পেয়ে ফ্লাইওভারে গিয়ে দেখি গলায় গামছা পেঁচানো রক্তাক্ত অবস্থায় উপুড় হয়ে পড়ে আছে এক ব্যক্তি। পরে মরদেহ উদ্ধার করে আইনি প্রক্রিয়া শেষে ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়।

তিনি জানান, সুভাষ চন্দ্র সূত্রধরের কাছে থাকা পাসপোর্ট দেখে তার পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়। এরপর জানা যায় তিনি দুবাই থাকতেন। গত বছরের ১৩ নভেম্বর বাংলাদেশে আসেন।